রাজশাহীর আড্ডা। ছবি: উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ/সিসি-বাই-এসএ ৪.০

মূলত বিস্ময় থেকে বাংলা উইকিপিডিয়া সম্প্রদায়ের সাথে জড়িত হয়েছিলাম, পরবর্তীতে তা ভালোবাসায় পরিণত হয়। ২০০৭ খ্রিষ্টাব্দ থেকে আমি উইকিপিডিয়ার পাঠক। কারণে-অকারণে উইকিপিডিয়ায় বিভিন্ন পাতা অনুসন্ধান করতাম; পড়তাম। কখনো ভেবে দেখার প্রয়োজন মনে করিনি যে, এই সমস্ত নিবন্ধ কারা লিখছে বা কিভাবে লিখছে। ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দের আগে জানতামও না বাংলা উইকিপিডিয়ার অস্তিত্বের কথা। কারণ আমার তখনকার মোবাইলে বাংলা ভাষা লেখা বা পড়ার সুবিধাটি ছিলো না।

পরবর্তীতে স্মার্টফোন কেনার পর তথ্য অনুসন্ধান করতে যেয়ে বাংলা উইকিপিডিয়ার হদিস পেলাম। ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দে একদিন ফেসবুকে “বাংলা উইকিপিডিয়া সমৃদ্ধ করুন” নামে একটা কর্মশালার ইভেন্ট দেখলাম। এটা দেখে সত্যিই স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলাম এই ভেবে যে, তাহলে কি আমিও উইকিপিডিয়ায় কাজ করতে পারবো! কর্মশালাটি হয়েছিলো ২১শে ফেব্রুয়ারি। সেখানে যেয়ে শ্রদ্ধেয় নাহিদ হোসেন আর মুশফিক মুন্না ভাইয়ের সাহচর্য লাভ করি। তারপর মাসুম আল হাসান রকি ভাইয়ের সাথে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে, তিনি রাজশাহী উইকিপিডিয়া সম্প্রদায় ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় উইকি ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা আর বর্তমানে বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক হিসেবে কাজ করছেন। তাদের সংস্পর্শে এসে উইকিপিডিয়া সম্পাদনার হাতেখড়ি হয়। এরপর বহু বছর পেরিয়ে গেলো। আমি এখন রাজশাহী উইকিপিডিয়া সম্প্রদায়ের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছি।

এছাড়া উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ কর্তৃক প্রকাশিত ম্যাগাজিন “উইকিবার্তা”র সহঃসম্পাদক হিসেবেও কাজ করছি। গত ৬ বছরে উইকিপিডিয়া আর এই সম্প্রদায়ের সাথে অনেক স্মৃতি তৈরি হয়েছে। শহরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আমরা কর্মশালার আয়োজন করতাম। ৫০ হাজার নিবন্ধের মাইলফলক স্পর্শ করার জন্য সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতাম। এরপর দেশব্যাপী এরকম  কর্মযজ্ঞের ফলে আমাদের নিবন্ধ সংখ্যা ৫০ হাজার হলো। কী যে ভালো লেগেছিলো সেই সময়টায়!!! কালের পরিক্রমায় বাংলা উইকিপিডিয়া এখন আরো সমৃদ্ধ। ১ লাখ নিবন্ধের মাইলফলক পেরিয়ে গেলাম! সেসময়ের চেয়ে এখন কলেবরে দ্বিগুণ বেড়েছে বাংলা উইকিপিডিয়া, কিন্তু ভালোবাসা বেড়েছে বহুগুণ। ১ লাখ নিবন্ধ আমাদের স্বপ্ন ছিলো, আজ তা বাস্তবতার সোনালি আলোয় ধরতে পেরেছি।

রাজশাহী উইকিপিডিয়া সম্প্রদায় থেকে আমরা সবসময় চেষ্টা করেছি কর্মশালা, মিট-আপ, ফটো-ওয়াক ইত্যাদির মাধ্যমে আরো নতুন স্বেচ্ছাসেবী যুক্ত করা, উইকিপিডিয়া সম্পাদনা বাড়ানোসহ উইকিমিডিয়া আন্দোলনের সমস্ত কর্মকাণ্ড আঞ্চলিক পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে। সারাবছর খুবই ব্যস্ত সময় কাটাতো এই সম্প্রদায়। প্রতি মাসেই অফলাইনে কোনো না কোনো কর্মসূচী পালন করতাম আমরা। কয়েকশ’ মানুষকে উইকিপিডিয়া সম্পাদনার প্রশিক্ষণ দিয়েছি। তাদের মধ্যে অনেকেই অল্প বা বেশি সময়ের জন্য সম্পাদনায় যুক্ত ছিলেন; অনেকে এখনও যুক্ত আছেন।

আমার মনে আছে, ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের উইকি লাভ্‌স মনুমেন্ট্‌স প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত সেরা দশটি ছবির তিনটিই ছিলো এই সম্প্রদায়ের সদস্যদের তোলা। এছাড়া উদ্ভাবনী মেলায় অংশগ্রহণ, জার্মান উইকিপিডিয়ান ক্রিস্টেল স্টাইগেনবার্গারের সাথে কর্মশালা, মাদ্রাসায় উইকিপিডিয়া কর্মশালা, নারীদের জন্য বিশেষ কর্মশালা, সাঁওতালি উইকিপিডিয়া নিয়ে কর্মশালা, উইকিমিডিয়া স্ট্র্যাটেজি স্যালোন আয়োজন ইত্যাদি আমাদের সম্প্রদায়ের গৌরবোজ্জ্বল অংশ বলে মনে করি।  আজকের এই আনন্দের দিনে রাজশাহী সম্প্রদায়ের সাথে জড়িত সবাইকে ধন্যবাদ দিতে চাই। এই মহান জ্ঞানসিন্ধুতে বিন্দু পরিমাণ হলেও যারা অবদান রেখেছেন আজকের এই আনন্দ-গৌরব তাদের সবার।

Translate »
Share This