কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারীর কারণে সবকিছু থমকে গেলেও উইকিমিডিয়ানরা থেমে নেই। বরং অন্য সময়ের চেয়ে এখন অনেক ক্ষেত্রে অবদানের সংখ্যা আরো ব্যাপকতর হয়েছে। যদিও অফলাইন সম্মেলন বা অন্যান্য আয়োজন বন্ধ আছে, তবে সম্মেলনের মত অনেক আয়োজন এখন অফলাইনের পরিবর্তে অনলাইনেই হচ্ছে।

উইকিউপাত্তের ৮ম জন্মদিন উপলক্ষে গত ২৬-২৮ অক্টোবর ৩ দিনব্যাপী ভার্চুয়াল সম্মেলন উইকিসাইট অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৮২ জন বক্তা ৩২ ঘণ্টার উপস্থাপনা বা প্রেজেন্টেশন দেন। উন্মুক্ত প্রবেশাধিকার সপ্তাহ উপলক্ষে গত ২৪ অক্টোবর উইকিমিডিয়া পোলস্কার শিক্ষা বিভাগ দিনব্যাপী সম্মেলনের আয়োজন করে। সম্মেলনটির মুখ্য বিষয়বস্তু ছিল “ডিজিটাল শিক্ষায় সহযোগিতা”। এতে পোল্যান্ডের ১৬০ জনের বেশি শিক্ষক এবং শিক্ষাবিদ অংশ নেন। এ বছরের উত্তর আমেরিকার বার্ষিক সম্মেলন ‘উইকিকনফারেন্স নর্থ আমেরিকা ২০২০’ সাম্প্রতিক সময়ে অন্যান্য সম্মেলনের মত অনলাইনেই অনুষ্ঠিত হয়।

গত ডিসেম্বরে ৩ দিনব্যাপী এ সম্মেলনে কানাডা, আমেরিকা, মেক্সিকো ও ক্যারিবিয়ান দেশগুলি থেকে স্বেচ্ছাসেবকরা অংশ নেন। এছাড়া গত ২ নভেম্বর  উইকিউপাত্তের উপরে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। যে কর্মশালাটি বৈজ্ঞানিক ক্ষেত্র এবং শিল্প – উভয়ক্ষেত্রে উইকিউপাত্তের আশেপাশে কর্মরত সবাইকে এই সহযোগী জ্ঞানের প্রবণতা এবং বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করার জন্য একত্রিত করেছিল। করোনাকালীন সময়ে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের অনেক চ্যাপ্টারের বার্ষিক সম্মেলনও অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বাংলা উইকিপিডিয়া সম্প্রদায়েও করোনাকালীন সময়ে উইকিপিডিয়ানদের আড্ডাগুলি অনলাইনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আড্ডা অনলাইনে হওয়ায় বিশ্বের সকল প্রান্ত থেকে উইকিপিডিয়ানরা এতে অংশগ্রহণ করতে পারছেন। যা আড্ডাতে অন্য মাত্রা যোগ করেছে। এছাড়া গত কয়েক মাসে অনলাইনে বেশ কয়েকটি কর্মশালাও সম্পন্ন হয়েছে। উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ অনলাইনে একাধিক কর্মশালা, মিটআপ পরিচালনা করেছেন। অনলাইনে করায় মিটআপগুলোতে সাধারণ সময়ের চেয়ে অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা বরং বেশি ছিল।

গবেষণা-সম্পর্কিত যাবতীয় কার্যক্রম অনলাইনে চলে যাওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে গবেষকরা নিজ নিজ স্থান থেকেই অন্যদের সাথে যুক্ত হতে পেরেছেন। যদিও এতে সামনাসামনি মিথস্ক্রিয়ার সুযোগ ছিল না, তবে বর্তমান সময় বিবেচনায় এ-ও কম নয়।

বিশ্বজুড়ে অনেক অনলাইন সম্মেলন বা আয়োজন যেমন আয়োজিত হয়েছে আবার তেমনি অফলাইন সম্মেলন বাতিলের ঘটনাও রয়েছে। যেমন ২০২০-এ উইকিমিডিয়া সামিট ও উইকিম্যানিয়া অনুষ্ঠিত হয়নি এবং ২০২১ সালে অনুষ্ঠিতব্য উইকিমিডিয়া সামিট ইতোমধ্যে বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। অধিকাংশ দেশেই জনসম্পৃক্ততামূলক কার্যক্রম বন্ধই রাখা হয়েছে। অফলাইন কার্যক্রমের প্রয়োজনীয়তা প্রশ্নাতীত, তবে বর্তমান সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে যা হচ্ছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। এমন আরও কিছু ঘটনা হয়তো আমরা সামনে দেখতে পাব। তবে আশা করা যায়, দ্রুতই সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে এবং আগের মত বা আগের চেয়ে আরও ভালোভাবে সবকিছু সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

Translate »
Share This