উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের মে পর্যন্ত ব্র্যান্ডিং প্রকল্পকে স্থগিত ঘোষণা করেছে। এর ফলে বিশ্বব্যাপী উইকিমিডিয়ার বিভিন্ন প্রকল্পের নাম পরিবর্তনের যে প্রস্তাব ছিল, তা এখনই হচ্ছে না।

ব্র্যান্ডিং প্রকল্পের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী উইকিমিডিয়ার প্রকল্পসমূহ যেন আরো জনপ্রিয় হয় এবং সকলে অংশ নিতে পারে, তা নিশ্চিত করার প্রয়াস ছিল বলে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়। উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের ব্র্যান্ড অ্যাসোসিয়েট সামির এলশার্বতি উইকিবার্তায় দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, “যেকোনো পণ্য, ওয়েবসাইট, অলাভজনক যেকোনো কিছু সম্পর্কে ব্র্যান্ডিং হল প্রথম ছবি, যা আমাদের চোখে পড়ে। অতএব উইকিমিডিয়ার ব্র্যান্ডগুলোর উন্নয়ন ঘটানোর মাধ্যমে আমরা চাই ‘উইকিমিডিয়া কী’ এমন প্রশ্নের উত্তরের জন্য আসা মানুষের সহজতম প্রবেশকেন্দ্র তৈরি হোক। আর এটাই আমাদের চেষ্টা।” এর মাধ্যমে জনপ্রিয়তম প্রকল্প উইকিপিডিয়াকে প্রাধান্য দিয়ে সার্বিক আন্দোলনের নামকে রূপায়িত করার প্রচেষ্টা নিহীত ছিল। এর জন্য একাধিক ধাপে সম্প্রদায়ের সাথে আলোচনা করা হয়। তবে পরবর্তীতে দেখা যায়, সম্প্রদায়ের অনেকের মধ্যে ব্যাপক বিভ্রান্তি বিরাজমান।

নাম পরিবর্তনের যৌক্তিকতা নিয়ে বিশ্বব্যাপী সম্প্রদায় প্রশ্ন তোলে, এবং এর ফলে সম্ভাব্য সমস্যার কথাও তুলে ধরে। নামকরণের জন্য ২০২০-এর ১৬ জুন থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত যে জরিপ চালানো হয়, তাতে সম্প্রদায়ের একটি বিশাল অংশ, অংশগ্রহণ করা থেকে বিরত থাকে। জরিপের শুরু থেকেই বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে এর বিরুদ্ধে নানাবিধ সমস্যার ভিত্তিতে নিজেদের অবস্থান ব্যক্ত করে সম্প্রদায়ের অনেক সদস্য। নামকরণের বিপরীতে ৭২টি অ্যাফিলিয়েট এবং ৯৪২জন সম্প্রদায়ের সদস্য বোর্ড অব ট্রাস্টিজের উদ্দেশ্যে উন্মুক্ত চিঠিতে স্বাক্ষর করে এই প্রকল্প সম্পূর্ণরূপে বাতিল বা স্থগিত করার অনুরোধ জানায়। উন্মুক্ত চিঠি তৈরির পর থেকেই একের পর এক স্বাক্ষর ও এই চিঠির দাবির সপক্ষে সমর্থন জানায় সম্প্রদায়ের সদস্যগণ। সার্বিক দিক বিবেচনা করে বোর্ড অব ট্রাস্টিজ সিদ্ধান্ত নেয় আগামী বছরের আগ পর্যন্ত এই কার্যক্রম স্থগিত রাখার।

স্বেচ্ছাসেবকেরা বলেন যে, উইকিপিডিয়া গত প্রায় ২০ বছর ধরে অনির্ভরশীল, সম্প্রদায়চালিত উৎস হিসেবে কাজ করছে। নামকরণের এই পরিবর্তন সম্প্রদায়ের ভারসাম্য বজায় রাখতে সমস্যা তৈরি করবে। তাই ‘উইকিপিডিয়া’ শব্দের প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ বিশ্বব্যাপী সম্প্রদায়ে বিরূপ মনোভাব তৈরি করেছে। প্রকল্পের বিশ্লেষণ করে ‘অস্পষ্ট লাভের জন্য বিশাল অঙ্কের ব্যয়’, ‘সম্প্রদায়ের পরিচয়ের ঝুঁকি’ বিষয়গুলো দেখানো হয়েছে। এছাড়া ২০১৯-এর আগস্টে হওয়া ফাউন্ডেশনের সম্প্রদায় পর্যালোচনা সম্প্রদায়ের একটি বড় অংশের দৃষ্টিতে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে পুরো প্রক্রিয়াকেই।

Translate »
Share This