সদ্য বাতিল হওয়া উইকিমিডিয়া ভারতের লোগো।

উইকিপিডিয়ার তত্ত্বাবধানকারী সংস্থা উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন, ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ সেপ্টেম্বর তারিখ ভারতে তাদের চ্যাপ্টার উইকিমিডিয়া ভারত-এর অনুমোদন বাতিল করে দিয়েছে। উইকিপিডিয়া ও এর সহ-প্রকল্পসমূহের স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রম পরিচালনা ও প্রসারের লক্ষ্যে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন বিশ্বব্যাপী নির্দিষ্ট শর্তে আঞ্চলিক চ্যাপ্টার অনুমোদন করে থাকে। উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের পক্ষে এ প্রক্রিয়াটি সম্পাদনা করে ‘উইকিমিডিয়া অ্যাফিলিয়েশন্স কমিটি’ যা অ্যাফকম নামে পরিচিত।

উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের আঞ্চলিক চ্যাপ্টার পরিচালনার শর্তাবলী পূরণের ব্যার্থতার অভিযোগে উইকিমিডিয়া ভারতের অনুমোদন বাতিল করা হয়েছে বলে এক বার্তায় জানিয়েছেন অ্যাফকমের প্রধান কিরিল লকশিন। অ্যাফকম সূত্রমতে, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১০ নভেম্বর অনুমোদন বাতিলের কথা প্রথম উইকিমিডিয়া ভারতের বোর্ডকে জানানো হয়।

উইকিমিডিয়া ভারতের ৭জন বোর্ড সদস্যের একজন, অভিনব শ্রীবাস্তব, ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ৭ জুলাই এ সিদ্ধান্তের কঠোর প্রতিবাদ করে উইকিমিডিয়ার পাবলিক মেইলিং লিস্টে একটি মেইল প্রদান করেন। ১৪ জুলাই পুনে মিরর নামে ভারতের একটি আঞ্চলিক সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ১৭ জুলাই উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এ বিষয়টি উইকিমিডিয়া সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সদস্যকে জানানো হয়। ভারত ও অন্যান্য দেশের উইকিপিডিয়া অবদানকারীদের মধ্যে এটি নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনার সৃষ্টি করে।

উল্লেখ্য, ২০১০ খ্রিষ্টাব্দের জুনে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন ২৯তম আঞ্চলিক চ্যাপ্টার হিসেবে উইকিমিডিয়া ভারতকে অনুমোদন দেয়। পরের বছর ‍সংস্থাটি ভারত সরকারের কাছে নিবন্ধন লাভ করে।

বর্তমানে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের ৩৭টি আঞ্চলিক চ্যাপ্টার রয়েছে যার মধ্যে দক্ষিণ এশিয়াতে একমাত্র চ্যাপ্টার রয়েছে বাংলাদেশে। উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন ২০১১ খ্রিষ্টাব্দের ৩ অক্টোবর বাংলাদেশে তাদের স্থানীয় চ্যাপ্টার অনুমোদন করে যা ‘উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ’ নামে পরিচিত।

Translate »
Share This