এমনা মিজোনি। ছবি: হাবিব মেহন্নি, সিসি-বাই ৪.০

তিউনিশীয় উইকিপিডিয়ান এমনা মিজোনি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের বর্ষসেরা উইকিমিডিয়ান হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। বিশ্বব্যাপী উইকিমিডিয়া আন্দোলন, বিশেষত আরব ও আফ্রিকান দেশগুলোতে অবদান রাখা এবং তিউনিসিয়ার ইতিহাস ও সংস্কৃতি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করার জন্য তাঁকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

এমনা মিজোনি তিউনিশিয়ার রাজধানী শহর তিউনিসে বসবাস করতেন। আরব বসন্ত শুরু হলে তিনি তিউনিশিয়া ভ্রমণে বের হন। দেশ ভ্রমণের এই অভিজ্ঞতায় তিনি সাধারণ তিউনিশীয় জনগণের কাছাকাছি যাওয়ার সুযোগ পান। তিনি বুঝতে পারেন দেশব্যাপী মুক্ত জ্ঞানের স্বল্পতা রয়েছে। তিউনিসশিয়ার ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্পর্কে জানার মত মুক্তজ্ঞান কিভাবে বাড়ানো যায়, তা নিয়ে পরিকল্পনা করতে থাকেন।

২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে এমনা মিজোনি আরও কয়েকজনের সাথে যুক্ত হয়ে কার্থাগিনা নামে একটি অলাভজনক বেসরকারি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন। তিউনিশিয়ার বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য জাতীয় ঐতিহ্য ও ইতিহাস সংরক্ষণ, সুরক্ষা এবং প্রচারে অবদান রাখার লক্ষ্য নিয়ে তিনি এই প্রতিষ্ঠানটি শুরু করেন। তিনি এই প্রতিষ্ঠানের বর্তমান সভাপতি।

এরপর মুক্ত জ্ঞান নিয়ে কাজ করার জন্য তিনি উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের সাথে যুক্ত হন এবং ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে উইকি লাভ্‌স মনুমেন্ট্‌স প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে তিউনিশিয়ার বিভিন্ন স্থাপনার ছবি মুক্ত লাইসেন্সে প্রকাশ করেন ও অন্যদেরও কাজ করতে আহ্বান জানান।

২০১৫ ও ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে তিনি উইকিআরব সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের অ্যাফিলিয়েশন কমিটিতে যোগ দেন এবং দুই বছর পর কমিটির সহ-সভাপতি হন।

এমনা মিজোনি অনলাইনে অবদান রাখার পাশাপাশি তিউনিশিয়ায় উইকিপিডিয়া বিষয়ক কর্মশালা আয়োজন, উইকিমিডিয়া আন্দোলন পরিচালনা, বিভিন্ন এডিটাথন আয়োজন, বৈশ্বিক সম্প্রদায়ের সাথে যোগাযোগ ইত্যাদি কাজ করে থাকেন। উইকিপিডিয়ার পাশাপাশি এমনা মিজোনি উইকিমিডিয়া কমন্সে অবদান রাখেন।

Translate »
Share This